প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস

রাজবাড়ী সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের পরিচিতি

প্রমত্তা পদ্মার কূলঘেষা রাজবাড়ী জেলা বৃটিশ ভারতের গোয়ালন্দ মহকুমার একটি থানা। ভারতবর্ষের রাজধানী কলকাতার সাথে উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের যাতায়াতের প্রবেশদার ছিলো গোয়ালন্দ ঘাট। নৌ পথের সাথে ১৮৭১ সালের ১ জানুয়ারী রেলপথ চালু হলে এর গুরুত্ব আরো বেড়ে যায়। ভৌগোলিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল রাজবাড়ী কেন্দ্রস্থলে রাজবাড়ী সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজটি অবস্থিত।

কলেজ প্রতিষ্ঠা

১৯৮০ সালে তৎকালীন রাজবাড়ী মহকুমার প্রধান কলেজটি জাতীয়করণ করা হলে রাজবাড়ীবাসী আরো একটি নতুন কলেজ প্রতিষ্ঠার প্রয়োজনীয়তা অনূভব করে। ১৯৮২ সালের ২০ আগষ্ট তৎকালীন মহকুমা প্রশাসক জনাব দেওয়ান আফসার উদ্দিনের সভাপতিত্বে জেলার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সমন্বয়ে কলেজ প্রতিষ্ঠার প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় রাজবাড়ী স্টেডিয়াম গ্যালারির নীচে ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৮২খ্রি. থেকে রাজবাড়ী আদর্শ কলেজ নামে সহশিক্ষা শ্রেণীপাঠের কার্যক্রম শুরু হয়।

 

কলেজটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব দেওয়ান আফসার উদ্দিন, প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারি জনাব কাজী ইরাদত আলী, প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ জনাব মো: আমিন উদ্দিন খান।

মহীয়সী নারী ওয়াজেদুননেছা

বিখ্যাত সাহিত্যিক জনাব মীর মশারফ হোসেনের পরিবারভুক্ত রাজবাড়ী বালিয়াকান্দি উপজেলার পদমদীর উচ্চ শিক্ষিত নবাব পরিবার মীর আশরাফ আলীর কনিষ্ঠ পুত্র মীর আব্দুস নাসির শাহীনের দ্বিতীয় কন্যা ওয়াজেদুননেছা। এই মহিয়সী নারীর বিবাহ হয় কুমিল্লার শিক্ষিত পরিবারের উচ্চ শিক্ষিত কলিকাতা হাইকোর্টের চৌকশ উকিল ‘ব্লাক স্টার অব বেঙ্গল’ নামে পরিচিতি এবং বৃটিশ পার্লমেন্টের অনারাবী সংসদ সদস্য জনাব শামসুল হুদার সঙ্গে। নিঃসন্তান এই ওয়াজেদুননেছার মৃত্যুর পর স্ত্রীর প্রতি প্রগাঢ় ভালোবাসায় ২২/০৭/২০১৫ তারিখ স্ত্রীর নামে একটি মুসলিম হোষ্টেল প্রতিষ্ঠার লক্ষে চারশত পঞ্চাশ টাকায় জমি ক্রয় করে মুসলিম বোডিং হাউজকে দান করেন। যা ওয়াজেদ্দা ওয়াকর্ফ এডুকেশন ট্রাষ্ট পরিচালিত হয়।

আদর্শ কলেজটির নিজস্ব কোন জমি না থাকায় ৮৩৮৮ নং দলিল সূত্রে ২৭/১২/১৯৮২ তারিখ ২০,০০০/- (বিশ হাজার) টাকা মূল্যে ট্রাষ্ট পরিচালনা কমিটি কলেজের নামে জমি রেজিস্ট্রি করে দেন। শুরু হয় কলেজটির নিজস্ব ভিতের উপর পথ চলা।

রাজবাড়ী আদর্শ মহিলা কলেজ

কিন্তু রাজবাড়ীবাসী একটি স্বতন্ত্র মহিলা কলেজের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করায় ৩১/০৮/১৯৮৬ খ্রি. গর্ভনিংবডি সদস্যেদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠায় সকল শর্ত পূরণ করে সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে ১৯৮৭-৮৮ শিক্ষাবর্ষ হতে ছাত্রী ভর্তি করা হয় এবং ১০ জুলাই ১৯৮৯ সালে কলেজটির নাম পরিবর্তন করে রাজবাড়ী আদর্শ মহিলা কলেজ করা হয়।

 

 

 

কলেজটি জাতীয়করণ

১৯৯৬ সালের ১৬ নভেম্বর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা একনেকের সভায় অবশিষ্ট জেলা সদরের মহিলা কলেজ সমূহ জাতীয় করণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করণের বিভিন্ন প্রক্রিয়া শেষে ০৩/০৪/১৯৯৭ খ্রি. তারিখ সরকারের নিকট সমস্ত স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি লিখে দিলে ঐ তারিখ হতে কলেজটি জাতীয়করণ করা হয়।

শিক্ষার্থীদের ফলাফলের সাফল্য

রাজবাড়ী জেলার একমাত্র কলেজ হিসেবে এইচএসসি পরীক্ষায় কলেজটিতে ০৩ (তিন) বার ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের মেধা তালিকায় শিক্ষার্থীরা অবস্থান পায়। এছাড়া সার্বিক ফলাফল অত্যান্ত সন্তোষজনক।

 

কলেজটিতে রয়েছে নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত একটি শহীদ মিনার যার সংলগ্ন রয়েছে ৫২ এর ২১ ফেব্রুয়ারী ঢাকায় মিছিলে অংশগ্রহণকারী রাজবাড়ী জেলার ভাষা সৈনিকগণের স্মৃতি চিহ্নিত নাম ফলক। সম্ভবত সমগ্র বাংলাদেশে এটাই প্রথম জেলাভিত্তিক ভাষা সৈনিকগণের শহীদ মিনার সংলগ্ন নাম ফলক। নতুন ভাবে নির্মিত হয়েছে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী, মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর একটি সুদৃশ্য ম্যুরাল।

মহিয়সী নারী ওয়াজেদুনেছার নামে চুরাশি শয্যা বিশিষ্ট একটি ছাত্রী হোস্টেল।

কলেজটির একাডেমিক কার্যক্রম-

উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে             : বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ।

স্নাতক পাস পর্যায়                  : মানবিক, সমাজবিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখা।

স্নাতক সম্মান পর্যায়               : বাংলা, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজকর্ম, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা ও মার্কেটিং।

মাস্টার্স পর্যায়ে                     : রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সমাজকর্ম।

 

এছাড়া রয়েছে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব ও কাজী কেরামত আলী নামে দুটি অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব।

একটি কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী, শিক্ষক কমনরুম, শিক্ষার্থীদের কমনরুম, গেস্টরুম বিভিন্ন বিভাগীয় ও ব্যবহারিক কক্ষ, রয়েছে ৪টি মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম।

ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি থেকে হাজার হাজার ছাত্রী জ্ঞানের আলো দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিচ্ছে।

 

কলেজটির বর্তমান অধ্যক্ষ                 : প্রফেসর দিলীপ কুমার কর।

বর্তমান উপাধ্যক্ষ                            : প্রফেসর এ.কে.এম ইকরামুল করিম।

 


Copyrights © Rajbari Govt. Adorsho Mohila College
Developed by BDHOST.